Tech Express - টেক এক্সপ্রেস

কে হবে facebook.com.bd ডোমেইনের মালিক?

facebook.com.bd ডোমেইনের মালিক কে হবে? বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান নাকি ফেসবুক নিজেই। প্রকৃত অর্থে ডোমেইন কারও নিজস্ব সম্পদ নয়, এটা অনেকটা লিজ নেওয়ার মতো। নিয়ম অনুযায়ী, খালি থাকা নামে যে কেউ যে কোনো ডোমেইনই কিনতে পারেন। এবং তা অকশনে বিক্রি করতে পারে কিংবা বিনা পয়সাতেও কাউকে মালিকানা দিয়ে দিতে পারেন।

বিশ্বের অনেক বড় বড় নামিদামি প্রতিষ্ঠান এই ডোমেইন অকশনের ব্যবসা করে থাকে। সেই বিবেচনায় A1 Software প্রতিষ্ঠানকে খারাপভাবে দেখার কিছু নেই। ডোমেইনের সত্ত্বাধিকারী যেই হোক নিয়ম অনুযায়ী কিছু কিছু ক্ষেত্রে তা হাতছাড়া হতে পারে। প্রকৃত অর্থে যেকোনো ডোমেইনের মূল মালিক বা নিয়ন্ত্রক হলো-Internet Corporation for Assigned Names and Numbers(ICANN)। ICANN এর শর্ত ভঙ্গ করলে যেকোনো ডোমেইন স্থগিত, বাতিল, মালিকানা বদলের মতো যেকোনো কিছুই হতে পারে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা ICANN এর শর্ত অনুযায়ী, ‘কেউ যদি ট্রেডমার্ক করা কোনো প্রতিষ্ঠানের নামে Domain রেজিস্ট্রেশন করে বা ডোমেইন ক্রয় করে, তবে ট্রেডমার্ককৃত প্রতিষ্ঠানটি উক্ত ডোমেইনের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চাওয়াসহ আইনি প্রক্রিয়ায় ওই Domain এর মালিকানা দাবি করতে পারবে।’

এই শর্তানুযায়ী ফেসবুক কর্তৃপক্ষ A1 Software এর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে পারবে।

ইতোমধ্যে ফেসবুকডটকমডটবিডি (facebook.com.bd) নামে বিটিসিএল থেকে ডোমেইন বরাদ্দ নেয়ায় এস কে শামসুল আলম নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার (৪৪ লাখ টাকা) ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু কথা হচ্ছে, ‘Facebook’ নিজেই কি আসলে ট্রেডমার্ককৃত কোনো প্রতিষ্ঠান? আমেরিকান সরকার নিয়ন্ত্রিত ট্রেডমার্ক নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান ‘United States Patent & Trademark Office’(USPTO.GOV) এর তথ্য অনুযায়ী, ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সবশেষ গত ৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ সালে ট্রেডমার্কের জন্য আবেদন করেছে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি এখনও অনুমোদন পায়নি। ফলে ফেসবুক ট্রেডমার্ককৃত প্রতিষ্ঠান হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়নি। এ বিবেচনায় ফেসবুক কোনো ট্রেডমার্ককৃত প্রতিষ্ঠান নয় এখন পর্যন্ত।

তাহলে A1 Software কি আইনি লড়াইয়ে জিতে যাবে? হয়তো না, কারণ এই ক্ষেত্রে আরও একটি অলিখিত আইন রয়েছে তা হলো-‘ কোনো জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান যার রয়েছে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তা, যে প্রতিষ্ঠান কোনো কমিউনিটি পরিচালনা করে কিংবা সেবামূলক কাজ করে থাকে, তার রয়েছে বিশ্বব্যাপী সুনাম। সেই প্রতিষ্ঠানের নামে যদি কেউ ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন কিংবা ওয়েবসাইট পরিচালনা করে তাহলে জনপ্রিয় ওই প্রতিষ্ঠানটি চাইলে ওই ডোমেইনের মালিকানা দাবি কিংবা ওই নামে পরিচালিত ওয়েবসাইট বন্ধের জন্য আইনি ব্যবস্থা নিতে পারে। কারণ জনপ্রিয় ওই প্রতিষ্ঠানটির নাম ব্যবহার করে কেউ যাতে অপরাধমূলক কার্যকলাপ কিংবা অন্য কোনো কাজে ব্যবহার করতে না পারে।’ এ নিয়ম অনুযায়ী, আইনি লড়াইয়ে ফেসবুকের জিতে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে A1 Software এর ক্রয় করা ডোমেইনটি facebook.com নয় facebook.com.bd অর্থাৎ সাথে বাংলাদেশের ডট বিডি এক্সটেনশনটি যুক্ত রয়েছে যেটি বাংলাদেশের নিজস্ব dotbd ডিএনএস সার্ভার নিয়ন্ত্রিত। তবে আইনি লড়াইয়ের ক্ষেত্রে এটাও কোনো বাধা হবে না। কারণ প্রত্যেকটি লোকাল DNS সার্ভারই ICANN নিয়ন্ত্রিত সার্ভারের সাথে সংযুক্ত এবং আন্তর্জাতিক নিয়ম মানতে বাধ্য।

তবে ডট বিডি ডোমেইন ক্রয় করার ক্ষেত্রে বিটিসিএল শুধু দেশীয় (বাংলাদেশি) প্রতিষ্ঠানকেই অনুমতি দিয়ে থাকে। ডটবিডি এর শুরুর দিকে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশনের জন্য দেশীয় প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক তথ্য ও কাগজপত্রসহ আবেদন করতে হতো (যদিও এখন ডোমেইন রেজিস্ট্রেশনের জন্য ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের তথ্য বা কাগজপত্র দিতে হয় না)। কিন্তু কথা হলো- ফেসবুক কি দেশীয় (বাংলাদেশি) প্রতিষ্ঠান? অথবা বাংলাদেশে ফেসবুকের কোনো অফিস আছে। উত্তর হলো – ‘না’। তাহলে বিটিসিএল এর নিয়ম অনুযায়ী ফেসবুক কি facebook.com.bd ডোমেইন কিনতে পারে? এ ক্ষেত্রে আইন হয়তো A1 Software এর দিকেই।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এবং আইন ফেসবুকের পক্ষে থাকলেও ব্যাপারটি কিন্তু অতো সহজ নয়। এই আইনি লড়াই চলতে পারে দিনের পর দিন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর। তাই এই ধরনের জটিলতা এড়াতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সবাই বেছে নেয় সহজ পদ্ধতি। আর তা হলো সমঝোতা।

রেজিস্টার্ড ডোমেইনটি দামাদামির মাধ্যমে কিনে নেয় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো। কিন্তু ফেসবুক এখন আইনি লড়াই কেই বেছে নিয়েছে। এখন দেখার অপেক্ষা জেতে?

প্রযুক্তিবিদ সালাউদ্দীন সেলিমের ফেসবুক ওয়াল থেকে। সম্পাদিত।

webadmin

Add comment

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.