Connect with us

Tech News

পুরাতন ইয়াহু মেইল ব্যবহারকারীদের জন্য অশনিসংকেত

Published

on

১৯৯৪ সালের জানুয়ারি মাসে জেরি ইয়াং ইয়াহু এবং ডেভিড ফিলো ইয়াহু প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথম দিক থেকেই ইয়াহুতে ম্যাসেঞ্জার এর সুবিধা যুক্ত ছিল। ধীরে ধীরে এর ব্যবহার অনেক ক্ষেত্রেই পুরো বিশ্বজুড়েই ছড়িয়ে যায়। বিভিন্ন কোম্পানি বা রাষ্ট্রীয় মেইল হিসেবেও ইয়াহু এর ব্যবহার দেখা গেছে বিভিন্ন দেশ এবং বড় বড় জায়েন্টদের মধ্যে।

ফেসবুক প্রতিষ্ঠার পূর্বে ইয়াহুর ব্যবহার ছিল জনপ্রিয়তার তুঙ্গে। ইয়াহু ম্যাসেঞ্জার ছিল সেই সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় বার্তা ও ছবি আদান প্রদান এর মাধ্যম।

ইয়াহু সিকিউরিটির কয়েকটি ধারাবাহিক পর্যায় রয়েছে। ২০০৪-১০ সালের মধ্যে বা পূর্বেকার সময়কালীন যারা ইয়াহু একাউন্টগুলো ব্যবহার করেছেন তাদের ক্ষেত্রে (OTP) One Time Password আসতো না, যার ফলে মোবাইল ফোন নাম্বার ইয়াহুতে এডকন্টাক অপশন ছিল না।

বর্তমান সময়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট অবৈধভাবে নিয়ন্ত্রণ করা খুব সহজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে যারা ইয়াহু মেইল আইডিতে যুক্ত করে রেখেছেন তারা আছেন বিশেষ ঝুঁকির মধ্যে। কারণ যাদের অনেক পুরনো ফেসবুক আইডি রয়েছে ও যাদের ইয়াহু মেইলের পাসওয়ার্ড মনে নেই, আইডি অন্যের নিয়ন্ত্রণে চলে গেলে ফেরত পাবার আশা খুব কম সেই সকল আইডির।

কারণ ইমেইল ছাড়া ফেসবুক আইডিগুলো রিকভার করা খুবই কষ্টসাধ্য আর যখন ইমেইলও হ্যাক হয়ে যায় সেই ক্ষেত্রে আইডিগুলো প্রায় ৭০ ভাগ ক্ষেত্রেই রিকভার করা সম্ভব হয়না। বর্তমানে ইয়াহুর আইডিগুলো যারা ক্লোন করে নিয়ন্ত্রণে নেবার চেস্ট করে তাদেরকে স্থানীয়ভাবে ইয়াহু ক্লোনার বলা হয়ে থাকে।

যেমন আপনার ইয়াহু অ্যাকাউন্টের ভিক্টিমের একাউন্টের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে একই নামে ক্রিয়েট করে থাকে। এটি করতে সময় প্রয়োজন ৫-২০ মিনিট। যখন ক্লোনাররা একটি ইয়াহু মেইল পাবে সেটির ফেসবুক আইডিতে গিয়ে লগইন করার চেষ্টা করবে।

এরপর ফর্গেট পাসওয়ার্ড করে তারা নিশ্চিত হবে। এবার একটি মোবাইল সংযুক্ত করার মাধ্যমে ইয়াহু আইডি মেইল খুলে আপনার আইডি তার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নিবে। যদি আপনি ইয়াহু পাসওয়ার্ড রিকোভার করতে না পারেন, সেক্ষেত্রে আপনি আপনার আইডি কখনই ফেরত পাবেন না বললেই চলে।

আর এ ধরনের ক্লোনিং এর পর আইডির অ্যাক্সেস পেয়ে গেলে এর থেকে হতে পারে ইয়াহু ক্লোনারের বিভিন্ন ধরনের হুমকির এবং ব্ল্যাকমেইলের প্রাথমিক স্তর। যেমন আপনার আইডি থেকে কিছু আপত্তিকর ছবি বা ভিডিও ফুটেজ বা সংবেদনশীল তথ্য থাকতে পারে যা সংগ্রহ করে টাকা চাইবে।

টাকা না পেলে তা বিভিন্ন জাগায় ছড়াতে থাকবে বলে হুমকি দেয়। ব্ল্যাকমেইল করে এবং কোন কোন ক্ষেত্রে তা ভার্চুয়াল জগতে ছড়িয়ে দেয়।

বাংলাদেশে অপরাধ গবেষণাবিষয়ক সংগঠন ক্রাইম রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস ফাউন্ডেশনের (ক্রাফ) টেকনিক্যাল টিমের সদস্য বি এম ইয়ামিন এ ব্যাপারে বলেন, এই ধরনের কিছু সমস্যার টেকনিক্যাল সমাধান আমরা করেছি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এগুলো রিকোভার করা পসিবল হয় না। যার ফলে আইডিগুলো নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া ছাড়া আমাদের আর কিছুই করার থাকছে না।

এ বিষয়ে ক্রাফের সভাপতি জেনিফার আলম বলেন, আমরা যারা খুব পুরনো ইয়াহু একাউন্ট ইউজার আছি এবং ফেসবুকেও ইয়াহু মেইল একাউন্টগুলোকে যুক্ত করেছি তাদের অবশ্যই উচিত এটা শিগগির চেক করে দেখা যে আমাদের ইয়াহু একাউন্টগুলো সচল আছে কিনা।

এছাড়া প্রয়োজনে নতুন ইমেইল সংযুক্ত করা দরকার ফেসবুকে। ফেসবুকে যুক্ত করা ইমেইলের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার ধাপগুলো সঠিকভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে কিনা সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। ফেসবুক ও ইমেইল আইডি হ্যাক হলে অনেকেই অনেক ধরনের বিড়ম্বনার ও ব্ল্যাকমেইল শিকার হয়ে থাকেন। আমাদের নিজেদের একটু সচেতনতাই পারে এই ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যা থেকে আমাদেরকে নিরাপদ রাখতে।

কোন অবস্থায়ই ফেসবুক এবং ইমেইলে সংবেদনশীল তথ্য এবং ছবি আদান প্রদান করা যাবে না বলেও উল্লেখ করেন জেনিফার আলম। তিনি বলেন, যদি পূর্বে এমন কিছু করা হয়ে থাকে তাহলে উভয় পক্ষই তা ডিলিট করে দিবেন। আর যে কোন জরুরি প্রয়োজনে জাতীয় জরুরি সেবা- ৯৯৯ নম্বরে (টোল ফ্রি) কল করবেন।

Continue Reading

Highlights

বিপুল সংখ্যক অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট হ্যাকড

Published

on

জনপ্রিয় অ্যান্টিভাইরাস ‘নর্টন’-এর হাজার হাজার গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে। হ্যাকারেরা গ্রাহকদের পাসওয়ার্ড ম্যানেজারে প্রবেশাধিকার পেয়ে থাকতে পারে বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে কোম্পানিটি। গ্রাহকদের পরিচয় সুরক্ষা ও সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক বিভিন্ন সেবা দেয় নর্টন।

প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট টেক ক্রাঞ্চের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, গ্রাহকদের উদ্দেশে দেওয়া এক বিজ্ঞপ্তিতে নর্টনের মূল কোম্পানি ‘জেন ডিজিটাল’ জানায়, বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আগেই প্রকাশ পাওয়া বা হাতিয়ে নেওয়া বিভিন্ন তথ্য বা পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে এই হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটেছে। যারা ‘পাসওয়ার্ড ম্যানেজার’ ফিচারটি ব্যবহার করেন তাঁদেরই মূলত এই বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়েছে নর্টন।

অনুপ্রবেশকারী গ্রাহকের সংরক্ষিত পাসওয়ার্ডের তথ্যও পেয়েছে -এমন শঙ্কার কথা উড়িয়ে দিচ্ছে না কোম্পানিটি। জেন ডিজিটাল আরও জানায়, প্রায় ৬ হাজার ৪৫০ জন অ্যাকাউন্ট হারানো গ্রাহকের কাছে বিজ্ঞপ্তিটি পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, নাম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে অ্যাকাউন্টে প্রবেশের সময় অননুমোদিত এক তৃতীয় পক্ষ ব্যবহারকারীর প্রথম নাম, পদবি, ফোন নম্বর ও ই-মেইল ঠিকানা দেখে ফেলেছে।

এই ধরনের আক্রমণ প্রতিরোধ করতে গ্রাহকদের ‘টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন’ ব্যবস্থা ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে নর্টন। ফলে, শুধু পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারবে না হ্যাকার।

কোম্পানিটির নিজস্ব অনুসন্ধান অনুযায়ী, ১ ডিসেম্বর থেকেই অ্যাকাউন্টের তথ্য চুরির কাজ শুরু করেছিল হ্যাকার। আর ১২ ডিসেম্বর নাগাদ কোম্পানি নিজস্ব সিস্টেমে গ্রাহকদের ‘ব্যর্থ লগইনের’ বিশাল অংশ শনাক্ত করে।

Continue Reading

Highlights

নারীরা বিয়ের পর গুগলে যেসব বিষয় সার্চ করেন

Published

on

টেক এক্সপ্রেস ডেস্ক:
বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগলের ব্যবহারকারী রয়েছে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই। যখন যা জানার ইচ্ছে হয় গুগলে সার্চ করেই জেনে নিতে পারছেন। মনের যত জিজ্ঞাসা এখন আর বই পুস্তক ঘাঁটাঘাঁটি করে খুঁজে বের করতে হয় না। কয়েকটি শব্দ টাইপ করে গুগল থেকেই জেনে নেওয়া যায় সবকিছু। রান্নার রেসিপি থেকে শুরু করে মহাকাশের নানান বিষয় জানা যায় গুগলের মাধ্যমেই। সপ্রতি গুগলের সার্চের তালিকায় আছে বেশ কিছু মজার তথ্য। নারীরা বিশেষ করে সদ্য বিবাহিত নারীরা গুগলে সার্চ করেন বিভিন্ন বিষয়। সবচেয়ে বেশি গুগলে তারা যা জানতে চান তার পাঁচটি বিষয়ের কথা জানিয়েছে গুগল। চলুন জেনে নেওয়া যাক বিয়ের পর নারীরা গুগলের কাছে সবচেয়ে বেশি কি জানতে চান-

স্বামীর কাছে নিজেকে কীভাবে আরও আকর্ষণীয় করা যায়
অধিকাংশ বিবাহিত নারীরা গুগলে এই বিষয়টি সার্চ করেন। বিবাহিত নারীরা স্বামীর কাছে খুব আকর্ষণীয় দেখাতে চান। সমীক্ষা দেখায় যে বিবাহিত নারীরা তাদের স্বামীর কাছে কীভাবে আকর্ষণীয় দেখাবে তার জন্য গুগলে অনুসন্ধান করার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

স্বামীর মন জয় করার উপায়
বিয়ের পর নতুন একজন মানুষের সঙ্গে থাকা এবং তার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার একটি ব্যাপার থাকে। তাই স্বামীর মন জয় করে সুখে শান্তিতে সংসার করতে সুগলের সাহায্য নেন নারীরা। অধিকাংশ নারী গুগলে সার্চ করছেন বিয়ের পর কীভাবে স্বামীর মন জয় করা যায়। স্বামীর সঙ্গে কীভাবে মানিয়ে নেওয়া যায়, কীভাবে তাকে মুগ্ধ করা যায়।

স্বামীর পছন্দ-অপছন্দ
প্রত্যেক নববধূর তার স্বামীর পছন্দ-অপছন্দ নিয়ে চিন্তিত থাকেন। এজন্য গুগলে সার্চ করেন স্বামীরা কি খেতে পছন্দ করেন, কি করতে পছন্দ করেন ইত্যাদি।

শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের প্রশংসা পাওয়া যায় কীভাবে
এটা স্পষ্ট যে বেশিরভাগ বিবাহিত মেয়েরা কীভাবে শ্বশুরবাড়িতে পা রাখার পর শ্বশুরবাড়ির মন জয় করা যায় তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন। পরিবারের সদস্যরা সবাই পছন্দ করে এমন কোন খাবার তৈরি করা যায়। কিংবা শাশুড়ির সেবা করা যায় কীভাবে। তাদের মন জয় করে মিশেমিশে থাকার উপায়।

পারিবারিক দায়িত্ব
সদ্য বিবাহিত নারীরা জানার চেষ্টা করেন, কীভাবে আপনার পরিবারের দায়িত্ব পালন করবেন। এমনকি বিয়ের পর কীভাবে নিজের ব্যবসা চালানো উচিত কিংবা পরিবার কীভাবে ব্যবসা পরিচালনা করতে সাহায্য ও সহযোগিতা করতে পারে এসব বিষয় জানার জন্যও গুগলে সার্চ করেন নারী।

সূত্র: পিপা নিউজ

Continue Reading

Highlights

ক্রোম ব্রাউজার নিয়ে গুগলের নতুন ঘোষণা

Published

on

টেক এক্সপ্রেস ডেস্ক:
নতুন বছরের শুরুতেই পুরোনো উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের জন্য এলো দুঃসংবাদ। উইন্ডোজ ৭, উইন্ডোজ ৮ এবং উইন্ডোজ ৮.১ ব্যবহৃত কম্পিউটারে ক্রোম ব্রাউজারের সাপোর্ট বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে গুগল। ‘ক্রোম ১০৯’ হলো সর্বশেষ ভার্সন, যেটি পুরোনো এই অপারেটিং সিস্টেমগুলোতে ব্যবহার করা যাবে। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ তারিখে ‘ক্রোম ১১০’ রিলিজ করবে গুগল।

ক্রোম ব্রাউজারের নতুন এই ভার্সন ব্যবহার করতে চাইলে ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ কম্পিউটারে অবশ্যই উইন্ডোজ ১০ বা তার উন্নতমানের অপারেটিং সিস্টেম থাকতে হবে। গুগলের অফিসিয়াল সাপোর্ট পেজে বলা হয়েছে, ‘উইন্ডোজ ৭ এবং উইন্ডোজ ৮/৮.১ সাপোর্ট করবে এমন গুগল ক্রোমের শেষ ভার্সন হলো গুগল ক্রোম ১০৯। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ তারিখে রিলিজ হতে যাওয়া ক্রোম ১১০ ব্যবহার করার জন্য ডিভাইসটি অবশ্যই উইন্ডোজ ১০ বা উইন্ডোজ ১১ চালিত হতে হবে।’

গুগলের এই সিদ্ধান্ত একেবারে যে অপ্রত্যাশিত, তা কিন্তু নয়। কেননা আগামী ১০ জানুয়ারি ২০২৩ থেকেই উইন্ডোজ ৭ এবং উইন্ডোজ ৮.১ এর এক্সটেন্ডেড সাপোর্ট বন্ধ করে দেবে মাইক্রোসফট। আর তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই পুরোনো উইন্ডোজ চালিত কম্পিউটারগুলোতে ক্রোমের সাপোর্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত গুগলের। তবে এমনটা ভাবার কোনো কারণ নেই যে, ক্রোম ১১০ ভার্সন রিলিজ হওয়ার পরে উইন্ডোজ ৭ এবং উইন্ডোজ ৮/৮.১ চালিত কম্পিউটারে ক্রোম ব্রাউজার আর কাজই করবে না। ক্রোম ১০৯ দিয়ে কাজ ঠিকই করা যাবে কিন্তু তাতে নতুন আপডেট ও নিরাপত্তা আপডেট দেবে না গুগল।

ফলে উইন্ডোজ ৭/৮/৮.১ অপারেটিং সিস্টেম চালিত ডিভাইস ব্যবহার করা চালিয়ে গেলে স্বাভাবিকভাবেই নিরাপত্তা ঝুঁকির মুখে পড়তে হবে ব্যবহারকারীদের। ক্রোমের আপডেটের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে সিকিউরিটি সংক্রান্ত প্যাচ যোগ করা হয়। সাইবার নিরাপত্তার জন্য যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপডেট বন্ধ হয়ে গেল স্বাভাবিকভাবেই নিরাপত্তা ঝুঁকি দেখা দেবে।

তার ওপর মাইক্রোসফটও তাদের সাপোর্ট তুলে নেওয়ায় ম্যালওয়্যার এবং ভাইরাসের হানার ভয়াবহ ঝুঁকির মুখে পড়তে হবে ব্যবহারকারীদের। সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিতে উইন্ডোজ ১০ বা উইন্ডোজ ১১ অপারেটিং সিস্টেমে আপডেট হওয়ার কোনো বিকল্প নেই।

Continue Reading

Trending