স্টারলিংক ও এলটিডিকে ভর্তুকি দেবে না যুক্তরাষ্ট্র

স্টারলিংক ও এলটিডিকে ভর্তুকি দেবে না যুক্তরাষ্ট্র

প্রত্যন্ত অঞ্চলে উন্নত মানের ও গতিশীল ইন্টারনেট সংযোগ প্রদানে পৃথিবীর নিম্নকক্ষপথে স্যাটেলাইট উেক্ষপণ করছে ইলোন মাস্কের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্সের স্টারলিংক। সম্প্রতি স্টারলিংক ও এলটিডি ব্রডব্যান্ড যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নেটওয়ার্ক বিস্তারে ২০০ কোটি ডলার ভর্তুকি প্রদানের আবেদন করে। কিন্তু দেশটির ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন (এফসিসি) এ আবেদন নাকোচ করে দিয়েছে। খবর রয়টার্স ও টেকটাইমস।

এফসিসির তথ্যানুযায়ী, এর আগে স্টারলিংক এবং অন্য একটি প্রতিষ্ঠানকে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১৩০ কোটি ডলার দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পরিষেবা দিতে পারেনি। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে এফসিসি রুরাল ডিজিটাল অপরচুনিটি ফান্ড থেকে তিন শতাধিক দরদাতাকে অস্থায়ীভাবে ৯২০ কোটি ডলার দিয়েছিল। সে সময় এলটিডি ১৩২ কোটি এবং স্পেসএক্সের স্টারলিংক ইন্টারনেট নিলাম থেকে ৮৮ কোটি ৫০ লাখ ডলার পেয়েছিল।

ভর্তুকি বাতিলের বিষয়ে স্পেসএক্সের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এফসিসির চেয়ারওম্যান জেসিকা রোজেনওরসেন এক বিবৃতিতে বলেন, স্টারলিংকের যে প্রযুক্তি তাতে ভবিষ্যতের জন্য প্রতিশ্রুতি রয়েছে। বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটির দীর্ঘমেয়াদি আবেদন নাকোচের বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু এফসিসি স্টারলিংকের প্রযুক্তিগত উন্নয়নে বিনিয়োগের বিষয়ে কিছুটা সন্দিহান। কেননা তাদের পরিষেবা গ্রহণে ভোক্তাকে ৬০০ ডলার দিয়ে আলাদা ডিশ কিনতে হবে।

লোয়া, মিনেসোটা, নেব্রাস্কা, সাউথ ডাকোটা ও উইসকনসিনে এলটিডির নিজস্ব টাওয়ার রয়েছে। এফসিসির আবেদন নাকোচের বিষয়টিকে তারা অত্যন্ত হতাশাজনক বলে উল্লেখ করেছে। এক ই-মেইল বার্তায় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) কোরি হাওয়ার বলেন, প্রত্যন্ত অঞ্চলের আমেরিকানদের জন্য এলটিডি ব্রডব্যান্ড কী সুবিধা আনতে পারে, এফসিসি হয়তো সেটি উপলব্ধি করতে পারেনি। আমরা আবেদনপত্রটি পুনর্বিবেচনা করছি। পর্যবেক্ষণ শেষে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।

ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন জানায়, পৃথিবীর নিম্নকক্ষপথে স্যাটেলাইট উেক্ষপণ এবং এর প্রযুক্তির মাধ্যমে ৩৫টি রাজ্যের ৬ লাখ ৪২ হাজার ৯২৫টি স্থানে প্রতি সেকেন্ডে ১০০ মেগাবিট ডাউনলোড ও ২০ মেগাবিট আপলোড স্পিড প্রদানে ভর্তুকির জন্য আবেদন করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.