Tech Express
techexpress.com.bd

চিপের জন্য টিএসএমসিকে চাপ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

নিউজ ডেস্ক:
যুক্তরাষ্ট্রের গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর চাহিদা অনুযায়ী চিপ সরবরাহের মাধ্যমে সংকট কাটাতে তাইওয়ান সেমিকন্ডাক্টর ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানিকে (টিএসএমসি) চাপ দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির বাণিজ্যমন্ত্রী গিনা রাইমনডো এ কথা জানান। খবর রয়টার্স।

কাউন্সিল অব দ্য আমেরিকাস শিরোনামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রাইমনডো জানান, যুক্তরাষ্ট্রে আরো বেশি সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদনের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ও বড় বিনিয়োগ প্রয়োজন। সেই সঙ্গে বন্ধু রাষ্ট্রসহ আরো যেসব উৎপাদন ক্ষেত্র রয়েছে, সেগুলোকে পুনরুদ্ধার করা প্রয়োজন।

জেনারেল মোটরস কোম্পানির এক নির্বাহীর প্রশ্নের জবাবে রাইমনডো বলেন, গাড়ি প্রস্তুতকারী শিল্পের সঙ্গে অনেক মার্কিন নাগরিকের কর্মসংস্থান জড়িত। তাই তাইওয়ানের টিএসএমসিসহ অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো যেন আমাদের চাহিদা অনুযায়ী চিপ উৎপাদন ও সরবরাহ করতে সক্ষম হয় আমরা তার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, এমন কোনো দিন নেই যেদিন আমরা চিপ উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য চাপ প্রয়োগ করিনি। সেই সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদি সমাধান বাস্তবায়ন করা গেলে আমেরিকার জন্য আরো চিপ উৎপাদন করা সম্ভব হবে।

সম্প্রতি টিএসএমসি জানায়, চিপ সংকট দূর করাই এখন তাদের প্রধান লক্ষ্য। এ বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, গাড়ি প্রস্তুতকারী শিল্পে চিপ সংকট দূর করার জন্য টিএসএমসি বিভিন্ন দেশ এবং দলের সঙ্গে কাজ করে আসছে এবং এটা সবার জন্যই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় সে সম্পর্কে আমরা অবগত।

গত মাসে প্রধান নির্বাহী সি সি ওয়েই বলেন, জানুয়ারি পর্যন্ত টিএসএমসি তাদের উৎপাদন সক্ষমতা বৃদ্ধির ব্যাপারে গ্রাহকদের সঙ্গে কাজ করেছে। কিন্তু টেক্সাসের তুষারঝড় এবং জাপানের একটি কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় চিপ সংকট আরো তীব্র হয়। পরের প্রান্তিক থেকে গাড়ি প্রস্তুতকারী ফার্মে চিপ সংকট কেটে যাবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ তাইওয়ান এবং টিএসএমসির সহযোগিতা চেয়েছেন বলে তাইপের আইনপ্রণেতাদের জানান দেশটির অর্থমন্ত্রী ওয়াং মেইহুয়া।

তিনি বলেন, টিএসএমসির ব্যবসায়িক কার্যবিধি রয়েছে এবং সে-সংক্রান্ত নীতি মেনেই চলবে। তবে এ বিষয়ে তিনি বিস্তারিত কিছু জানাননি।

চিপ সংকট নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারে দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। তবে এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেউ কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

গাড়ি শ্রমিকদের সংগঠন ইউনাইটেড অটো ওয়ার্কার্সের মুখপাত্র জশ ন্যাসার এক লিখিত বক্তব্যে জানান, চিপ সংকটের কারণে হাজার হাজার কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এ মুহূর্তে আমাদের গাড়ি শিল্পের জন্য নিজস্ব প্রযুক্তির সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন ও সরবরাহ প্রয়োজন।

চিপ সংকটের কারণে দ্বিতীয় প্রান্তিকে গাড়ি নির্মাণ অর্ধেকে নেমে আসার ব্যাপারে সতর্ক করে ফোর্ড মোটর করপোরেশন। এতে প্রায় ২৫০ কোটি ডলার লোকসান হবে এবং ২০২১ সালে কোম্পানিটির গাড়ি নির্মাণ ১১ লাখ ইউনিট কমবে।

গত শুক্রবার জিএম জানায়, চিপ সংকটের কারণে উত্তর আমেরিকার বেশকিছু কারখানায় তাদের উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ করে দেবে।

গত ১২ এপ্রিল সেমিকন্ডাক্টর এবং গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের এ সংকট সমাধানে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে চিপ উৎপাদন এবং এ-সংক্রান্ত গবেষণা পরিচালনার জন্য ৫০০ কোটি ডলার বিনিয়োগের কথাও জানান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.