Connect with us

Gadgets

‘আইফোন ১২’ কেমন হবে?

Published

on

টেক এক্সপ্রেস ডেস্ক:
এ বছরের শেষ দিকে ‘আইফোন ১২’ বাজারে ছাড়তে পারে অ্যাপল। এটি হবে ফাইভ-জি সমর্থিত স্মার্টফোন। সবকিছু ঠিক থাকলে নতুন মডেলের ফাইভ-জি আইফোন কিনতে খরচ হতে পারে ১ হাজার ডলারের মতো। যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক ও বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান ওয়েডবুশ সিকিউরিটিজের বিশ্লেষক ড্যানিয়েল ইভস এমন তথ্য জানিয়েছেন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম বিজনেস ইনসাইডার বলছে, ড্যানিয়েল ইভসের পূর্বাভাস সত্যি হলে স্মার্টফোন শিল্পে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আসবে। বিশেষ করে পরবর্তী প্রজন্মের সুবিধা সম্পন্ন স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত দাম আরোপের যে ট্রেন্ড চলছে সেটি পরিবর্তন করবে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো।
ওয়েডবুশ সিকিউরিটিজের বিশ্লেষক ড্যানিয়েল ইভস তার এক সা¤প্রতিক রিসার্চ নোটে লিখেছেন, আইফোন ১২ -এর চারটি মডেল বাজারে আসবে বলে আমরা ধারণা করছি। এগুলোর মধ্যে ফোর-জি ও ফাইভ-জি দুই ধরনের ডিভাইসই থাকবে। ফাইভ-জি সক্ষমতার আইফোনের ক্ষেত্রেও দাম ১ হাজার ডলারের নিচে হতে পারে।

২০১৯ সালে তুলনামূলক কম দামে আইফোন বাজারে ছাড়ার নীতি গ্রহণ করে অ্যাপল। এরপর থেকে বিভিন্ন আলোচনা ও পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে, নতুন আইফোনের দাম বেশ কম হবে। প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা জনপ্রিয় ইউটিউবার জন প্রসারের মতে, পরবর্তী আইফোনের দুটি মডেল বাজারে আসবে। এরমধ্যে ৫ দশমিক ৪ ইঞ্চি স্ক্রিনের ভার্সনটির দাম ৬৫০ এবং ৬ দশমিক ১ ইঞ্চিটির দাম হতে পারে ৭৫০ ডলার।

আইফোন ১২ -এর সবকটি মডেল ফাইভ-জি প্রযুক্তির হবে কি না সেটি নিয়ে কথা হচ্ছে। অনেকে বলছেন, নতুন আইফোনের সব মডেলই ফাইভ-জি প্রযুক্তির হবে। তবে ফোর-জি ও ফাইভ-জি মিলিয়েই আইফোন-১২ বাজারে আসবে বলে জানিয়েছেন ড্যানিয়েল ইভস।

অ্যাপলের ফাইভ-জি ফোন তুলনামূলক কম দামে পাওয়া গেলে বাজারে সেটি সাড়া ফেলবে। অ্যাপল যদি ১ হাজারের ডলারের কম দামে ফাইভ-জি প্রযুক্তির ফোন বাজারে ছাড়ে তাহলে বেশিরভাগ ক্রেতা আইফোনের দিকে ঝুঁকতে পারে। কারণ, অন্য ফাইভ-জি স্মার্টফোনগুলোর দামও আইফোনের কাছাকাছি হবে।

প্রসঙ্গত, স্যামসাংয়ের ফাইভ-জি প্রযুক্তির স্মার্টফোন গ্যালাক্সি এস২০ -এর সর্বনিম্ন দাম ১ হাজার ডলার। মটোরোলা এজ প্লাসের দামও একইরকম। এ ছাড়া এলজির ফাইভ-জি স্মার্টফোনের দাম ৯০০ থেকে ৯৫০ ডলার এবং ওয়ানপ্লাস ৮ -এর দাম ৯০০ ডলার থেকে শুরু।

Continue Reading
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Gadgets

বাড়ছে মোবাইলের কল রেট ও সিমের দাম

Published

on

Gadget

টেক এক্সপ্রেস ডেস্ক:
২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটে মোবাইল ফোনে ব্যবহৃত সিম কার্ডে কর বাড়ানো হয়েছে। যে কোনো অপারেটরের সিম কেনার ক্ষেত্রে বেড়েছে ১০০ টাকা কর। ফলে সিম কার্ডের দাম বাড়বে। প্রস্তাবিত বাজেটে বলা হয়েছে, বর্তমানে মোবাইল ফোনের সিম কার্ডের ওপর কর রয়েছে ২০০ টাকা। এটি বাড়িয়ে ৩০০ টাকা করা হয়েছে। ফলে বাড়তি দামে গ্রাহককে সিমকার্ড কিনতে হবে। শুধু সিম কার্ড নয়, মোবাইলের কল রেট ও ইন্টারনেটের ওপরও সম্পূরক শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। এতে মোবাইলে কথা বলা এবং ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রেও গ্রাহক পর্যায়ে খরচ বাড়ছে।

আগে মোবাইল ফোনের কল রেট ও ইন্টারনেটের ডাটা প্যাকেজের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট এবং ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক দিতে হতো গ্রাহকদের। এখন তা আরও ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এর সঙ্গে ভোক্তাদের ১ শতাংশ সারচার্জ দিতে হবে। নতুন করে সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বাড়ানোয় একজন গ্রাহক এখন ১০০ টাকার রিচার্জ করলে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক কেটে নেওয়ার পর ৬৯ টাকা ৩৫ পয়সার কথা বলতে পারবেন।

আগে ১০০ টাকা রিচার্জ করলে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক কেটে নেওয়ার পর গ্রাহকরা ৭৩ টাকার কথা বলতে পারতেন। অর্থাৎ, ১০০ টাকা রিচার্জে আগের চেয়ে ৩ টাকা ৬৫ পয়সার কথা কম বলতে পারবেন গ্রাহকরা। অন্যদিকে নতুন করে সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোয় একজন গ্রাহককে এখন ১০০ টাকার ইন্টারনেট প্যাকেজে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক বাবদ ৩০ টাকা ৬৫ পয়সা কর দিতে হবে। বাকি ৬৯ টাকা ৩৫ পয়সার ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন তিনি।

আগে ১০০ টাকার ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনলে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক কাটা হতো ২৭ টাকা। বাকি ৭৩ টাকার ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারতেন গ্রাহকরা। এদিকে, প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণার পরপরই নতুন এ শুল্ক হার কার্যকর করবে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো। একটি মোবাইল অপারেটর কোম্পানির যোগাযোগ বিভাগের কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে জাগো নিউজকে বলেন, ‘বাজেট ঘোষণার জন্য অর্থমন্ত্রী জাতীয় সংসদে বক্তব্য দেওয়া শুরু করলেই এ-সংক্রান্ত আদেশ (এসআরও) পাঠানো হয়। ফলে আজ বিকেল ৩টার পর থেকেই নতুন হারে গ্রাহকের কাছ থেকে কর কর্তন শুরু করা হতে পারে।’

Continue Reading

Gadgets

গরমে মোবাইলের ব্যাটারির যত্ন নেবেন যেভাবে

Published

on

বাড়ছে গরম। এই সময় ইলেকট্রনিক জিনিসের বিশেষ যত্নের প্রয়োজন। এমনিতেই তাপমাত্রা থাকে বেশি। তারপর দীর্ঘক্ষণ তা ব্যবহার করলে বা চালিয়ে রাখলে খুব তাড়াতাড়ি তা গরম হয়ে যায়। যার মধ্যে অন্যতম হলো মোবাইল। প্রযুক্তি পণ্যের মধ্যে মোবাইলের ব্যবহার সবচেয়ে বেশি হয়ে থাকে। এই সময় তাই একটু সচেতনতার অভাব হলেই ঘটে যেতে পারে বিপত্তি। গরম হয়ে ব্যাটারি ফেটে যেতে পারে। তাই মোবাইলের ক্ষেত্রে গরমে একটু বেশি যত্নশীল হওয়া প্রয়োজন। তাই কয়েকটা বিষয় অবশ্যই নজর রাখুন, নইলে ঘটে পারে চরম অঘটন।

বিপদ এড়াতে যা যা করবেন-

১. বেশিক্ষণ মোবাইল চার্জ দেবেন না। প্রতিটা ফোনের ব্যাটারির ক্ষমতার ওপর নির্ভর করে তা কতক্ষণ চার্জে দিতে হয়। তাই নির্দিষ্ট সেই ২-৪ ঘণ্টার বেশি চার্জে বসিয়ে রাখবেন না।

২. মোবাইল চার্জে দিয়ে কথা বলবেন না। এখন তাপমাত্রা এমনই গরম, মোবাইল চার্জে থাকলে গরম হয়ে যায়। তার ওপর যদি ফোন করা হয়, তাতে ব্যাটারিতে চাপ পড়ে।

৩. কোনো কাজের ব্যস্ততায় রোদে মোবাইল ফেলে রাখবেন না। ধরুন এমন কোথাও আছেন, যেখানে রোদ, হয়তো ভুলে হাতের কাছে ফোনটা রেখেদিলেন, এমনটা করবেন না। তাতে ফোনের সমস্যা বেড়ে যেতে পারে।

৪. কোনো মোবাইলের ব্যাটারি যদি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে, তবে তা জোর করে ব্যবহার করা নয়। তা দ্রুত পাল্টে ফেলুন। অনেক সময় দেখবেন মোবাইলের পেছনে কিছু অংশে ফ্লুইড বেরিয়ে আসে, সেই ক্ষেত্রে সচেতন থাকুন ও মোবাইল পাল্টে ফেলুন।

৫. মোবাইলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলবেন না। এতে সমস্যা বাড়তে পাড়ে। মোবাইলকে বিশ্রাম দিন। ঠাণ্ডা হতে দিন। নয়তো বিপদের সম্ভাবনা বাড়বে।

Continue Reading

Gadgets

রিয়েলমির নতুন ফোনে ২৪০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার

Published

on

চীনের হ্যান্ডসেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রিয়েলমি এই প্রথম ২৪০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জারের ফোন আনছে। ফোনটির মডেল রিয়েলমি জিটি ৫।

নতুন ডিভাইসকে রিয়েলমি বলছে কিং অব অ্যানড্রয়েড স্মার্টফোন। কেননা, সাশ্রয়ী দামের এই ফোনে থাকছে ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ক্যামেরা এবং বিপুল স্টোরেজ। এক ফোনেই ইউজারদের সমস্ত চাহিদা মেটাতে চলেছে রিয়েলমি। ফোনটিতে পাঞ্চ হোল ডিজাইনের ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে।

৬.৭৪ ইঞ্চি ডিসপ্লের এই ফোনে ১.৫ কে রেজুলেশন মিলবে। এর অ্যামোলিড প্যানেলে ১৪৪ হার্জ রিফ্রেশ রেট পাওয়া যাবে।

এই ফোনে প্রসেসর থাকছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেনারেশন ২ চিপসেট। ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকছে ১ টেরাবাইট। র‌্যাম মিলবে ২৪ জিবি।

অ্যানড্রয়েড ১৩ অপারেটিং সিস্টেম চালিত এই ফোন কেনা যাবে দুইটি ব্যাটারি ভার্সনে। একটি পাওয়া যাবে ৪৬০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ার ব্যাটারি এবং ২৪০ ওয়াটের সুপারভোক ফাস্ট চার্জারে। অন্যটি কেনা যাবে ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি এবং ১৫০ ফাস্ট চার্জারেরর সঙ্গে। যা দুরন্ত গতিতে ব্যাটারিকে ০ থেকে ১০০ শতাংশ চার্জ করতে পারবে।

ফটোগ্রাফির জন্যও এতে রয়েছে বিশেষ আয়োজন, তিনটি ক্যামেরা সঙ্গে এলইডি ফ্ল্যাশ পাবেন এতে। ব্যাক প্যানেলে মূল সেন্সর হিসাবে ৫০ মেগাপিক্সেল লেন্স সঙ্গে ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর পাওয়া যাবে এতে। ফোনের ফ্রন্টে সেলফি ও ভিডিও কলের জন্য মিলবে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রে থাকছে ৫জি, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট। পাওয়া যাবে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

ভারতীয় মুদ্রায় এই হ্যান্ডসেটের সম্ভাব্য দাম ৫৩ হাজার ৫০০ রুপি থেকে শুরু।

Continue Reading

Trending